অল্প বয়সে চুল কেন পাকে? যা করতে পারেন

0
166

বয়সের সাথে সাথে চুল পাকা এটা খুবই স্বাভাবিক। এটি একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া।   আমরা কেউ আটকাতে পারব না। তবে সময়ের আগেই অনেকের চুল পাকতে শুরু করে।

নানা কারণে চুলে পাক ধরে। আসলে আমাদের ডায়েটে সামান্য পরিবর্তন ও ঘরোয়া তেল ব্যবহারেই চুল সাদা হওয়া থেকে বাঁচানো যায়। এখন জেনে নিন চুল কেন পাকে এবং পাকা রোধ করতে কী করতে পারেন।

চুল কেন পাকে?

চিকিৎসকদের মতে, বয়সজনিত কারণে চুলে পাক ধরতে পারে। মানুষের শরীরে লাখ লাখ চুলের ফলিকল আছে। ফলিকল চুল তৈরি করতে ও চুলের রঙ ঠিক রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। পিগমেন্ট কোষে থাকে মেলানিন নামক এক ধরনের উপাদান। যা চুলের রঙ ঠিক রাখে। সময়ের সাথে সাথে  পিগমেন্ট কোষগুলি নষ্ট হয়ে যায়। তখন চুলে পাকা শুরু করে।

অল্প বয়সে চুল কেন পাকে?

> ‘ডেভলপমেন্ট’ নামে একটি পত্রিকায় ২০১৫ সালে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। সেখানে বলা হয়েছে, ভিটামিনের অভাবে চুলে তাড়াতাড়ি পাক ধরতে পারে। ভিটামিন বি-৬, বি-১২ , বায়োটিন, ভিটামিন ডি এবং ভিটামিন ই-এর ঘাটতিতে অসময়ে চুলে পেকে যেতে পারে।

> বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জিনগত কারণেই অল্প বয়সে চুল পাকে।

> আবার কিছু রোগের কারণেও অসময়ে চুল পেকে যেতে পারে।

> অত্যাধিক দুশ্চিন্তায় চুল অসময়ে সাদা হয়ে যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের একাংশ সেই কথাই বলছেন। নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় সেই তথ্যই উঠে এসেছে।

> একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা ধূমপান করেন তাদের অসময়ে চুল সাদা হয়ে যায়।

যেভাবে চুল পাকা রোধ করতে পারেন

অল্প বয়সে চুল পাকা যদি বংশগত কারণে হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আসলে কিছু করার থাকে না। আবার যদি কোনো রোগের কারণে হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন। আর অন্যান্য ক্ষেত্রে ঘরোয়া এই উপায়গুলো বেছে নিতে পারেন।

**আমলকি এবং নারিকেল তেল

> আমলকিতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি থাকে। ভিটামিন সি চুলের কোলোজেন উৎপাদন বাড়িয়ে তুলতে পারে।

> ২ চামচ আমলকি গুঁড়া নিন। ৩ চামচ উষ্ণ নারিকেল তেল নিন।  তেলে ভালো করে মিশিয়ে নিন আমলকি গুঁড়া। এরপর তেল ঠান্ডা করে চুলের গোড়ায় লাগান। মাথার ত্বকেও ভালো করে মাসাজ করুন। ১ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এরপর সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

> এই তেলটি সপ্তাহে কমপক্ষে ২-৩ বার চুলে লাগান। এই তেল আপনার চুল কালো করতে সাহায্য করবে।

**কারিপাতা ও নারিকেল তেল

> কারিপাতা চুল কালো করে। আপনার চুল কালো করতে প্রয়োজন মেলানিন। কারিপাতা এই ঘাটতি পূরণ করে। কারিপাতা নতুন চুল গজাতেও খুবই কার্যকরী।

> একটি পাত্রে ৩ চামচ নারিকেল তেল নিন। ৫-৬টি কারি পাতা মিশিয়ে দিন। এরপর  হালকা আঁচে নাড়াতে থাকুন। যতক্ষণ না পর্যন্ত মিশ্রণটি কালচে হয়ে আসে।

> তারপর তেল ঠান্ডা হতে দিন। চুলের গোড়ায় এই তেল ঘষে নিন। ১ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন।

>সপ্তাহে ২-৩ বার চুলে এই তেল ব্যবহার করুন।

**নারিকেল তেল এবং লেবুর রস

> লেবুতে প্রচুর ভিটামিন সি এবং ফসফরাস আছে। এই দুই উপাদান চুলের পিগমেন্টেশন বজায় রাখতে সাহায্য করে।

> ২ চা-চামচ লেবুর রস নিন। এর সঙ্গে ২ চামচ উষ্ণ নারিকেল তেল মেশান। চুলের গোড়ায় ভালো করে এই তেল লাগান।

>১ ঘণ্টা রেখে দিন। এরপর শ্যাম্পু করে চুল ধুয়ে ফেলুন। পদ্ধতিটি সপ্তাহে দুইবার মেনে চলুন।

সূত্র: এই সময়

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে