প্রাকৃতিকভাবে সুন্দর থাকার উপায়

0
693
ত্বক চুলের তারুণ্য ধরে রাখতে খাদ্যাভ্যাস ঘুমের পাশাপাশি চাই নিজের সঠিক পরিচর্যা।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ‘প্রাকৃতিকভাবে সুন্দর’ থাকার উপায় সম্পর্কে ভারতী ত্বক ও চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. রিংকি কাপুরের দেওয়া পরামর্শগুলো এখানে দেওয়া হল।

দীর্ঘক্ষণ আরামদায়ক ঘুমঘুম পর্যাপ্ত না হলে এর প্রভাব দেখা দেয় ত্বকে। চোখের চারপাশে ফোলাভাব, মলিন ত্বক, চোখের চারপাশের কালোদাগ, বলিরেখা ও ক্লান্তি অপর্যাপ্ত ঘুমের লক্ষণ।

মানসিক চাপ বৃদ্ধির কারণে অনিদ্রা দেখা দেয়। তাই প্রতিরাতে কমপক্ষে সাত ঘন্টা ঘুম নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

নিয়মিত শরীরচর্চা করা: সপ্তাহে তিন দিন ৪৫ মিনিট শরীরচর্চা করার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এতে ত্বকের তারুণ্য ও উজ্জ্বলতা বজায় থাকবে।

এরজন্য খুব বেশি মাথা ঘামানোর দরকার নেই। কেবল নিয়ম করে ধৈর্য্য ধরে চালিয়ে যেতে হবে। ফলাফল কয়েকদিনের মধ্যেই চোখে পড়বে।

মুখ, গলা ও চোয়াল ও গাল টানটান রাখতে প্রতিদিন ১০ মিনিট মুখের ব্যায়াম করুন।

সূর্যালোক থেকে সুরক্ষা: শরীর আবৃত না করে কোনোভাবেই সূর্যালোকে যাওয়া উচিত না। অল্প সময়ের জন্যও বাইরে গেলে ছায়ায় থাকার চেষ্টা করুন। ছাতা, ওড়না বা টুপি ব্যবহার করে নিজেকে সূর্যের আলো থেকে দূরে রাখুন।

সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ত্বককে দ্রুত বুড়িয়ে ফেলে। এছাড়াও, পোড়াভাব, ত্বক পাতলা হয়ে যাওয়া ও কোলাজেন হ্রাস হওয়ার মতো সমস্যা সৃষ্টি করে। তাই যতটা সম্ভব নিজেকে সূর্যালোক থেকে সুরক্ষিত রাখুন।

আর্দ্রতা রক্ষা: ত্বককে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে নিজেকে আর্দ্র রাখার কোনো বিকল্প নেই। তাই, নির্দিষ্ট সময় পর পর পানি পান করুন। খাবারে জলীয় অংশের পরিমাণ বাড়াতে শসা, টমেটো, ফুলকপি, আঙুর ও তরমুজ যোগ করুন। আর্দ্রতা ত্বকের কোমলতা ধরে রাখতে সহায়তা করে।

চাপ কমান: মানসিক চাপ কর্টিসোল হরমোনের নিঃসরণ বাড়ায়, যা ত্বককে শুষ্ক, বলিরেখাপ্রবণ ও মলিন করে তোলে। তাই একদিন সময় বের করে সহজে সব কাজ সেরে নিন এবং নিজের মানসিক যত্ন নিন।

ত্বকের দৈনিক পরিচর্চা: প্রতিদিন বাইরে যাওয়া হচ্ছে না মানেই যে ত্বক সুরক্ষিত আছে তা কিন্তু নয়। বাড়িতে থাকলেও দৈনিক ত্বকের যত্ন নেওয়া উচিত।

ত্বকের প্রাকৃতিক যত্ন নেওয়ার উপায়

  • ঘরোয়া উপকরণ যেমন- লবণ, চিনি, মধু ও নারিকেল তেলের সাহায্যে সপ্তাহে দুইবার স্ক্রাব করে ত্বকের মৃতকোষ দূর করে নিন।
  • আঙুর দুই টুকরা করে কেটে তা ত্বকে মালিশ করুন। ত্বক পরিষ্কার হয়ে যাবে।
  • চোখে ‘আই ক্রিম’ ব্যবহারের আগে তা রেফ্রিজারেটরে রেখে নিন। ঠাণ্ডা আই ক্রিম চোখের ক্লান্তি দূর করে।
  • লোমকূপ উন্মুক্ত থাকলে ফেইশল মাস্ক খুব ভালো কাজ করে। গোসলের সময় মুখে পেঁপের মাস্ক মেখে পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করুন, ত্বক সতেজ হবে।
  • ত্বকে ময়েশ্চারাইজারের পাশাপাশি সানব্লকও করুন।
  • একটা স্প্রেয়ের বোতলে এল টেবিল চামচ সি-সল্টের সঙ্গে ২০০ মি.লি. পানি ও আট ফোঁটা ল্যাভেন্ডার তেল মিশিয়ে নিন। পাত্রটি ভালো মত ঝাঁকিয়ে তা ভেজা চুলে স্প্রে করে নিন এবং স্বাভাবিকভাবেই শুকিয়ে নিন। এটা চুলকে প্রাকৃতিকভাবেই ঘন ও ঢেউ খেলানো দেখাতে সাহায্য করবে।
  • চুলে স্টাইলিংয়ের ক্ষেত্রে গ্রিন টি ও শিয়া বাটার ক্রিম ব্যবহার করুন, চুল সুরক্ষিত থাকবে।

চুল স্ট্রেইট করতেমেয়ো মাস্কব্যবহার

আধা কাপ মেয়োনেইজ নিয়ে তা ভেজা চুলে আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত মেখে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর সাধারণ উপায়ে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে