প্রাণীর বর্জ্য থেকেই পাওয়া যায় সুস্বাদু কফি, দাম আকাশছোঁয়া

0
698

পৃথিবীর সব থেকে দামী কফি তৈরি করা হয় প্রাণীর বর্জ্য দিয়ে। শুনে অবাক হচ্ছেন তো? এটা অবশ্য অবাক হওয়ার মতই একটি কথা। কারণ পশুরা যখন কফি ফল খায় তখন তারা ফলটাকে হজম করে নিতে পারলেও দানাটিকে কোনও ভাবেই হজম করতে পারে না। তাই এই দানাগুলি তাদের প্রাতঃক্রিয়ার সঙ্গে বাইরে বেরিয়ে আসে। সেখান থেকে দানাগুলিকে সংগ্রহ করে বানানো হয় সুস্বাদু কফি।

সিভেট কফি
এই কফি বানানোর জন্য শুধুমাত্রই নির্ভর করতে হয় একটি প্রাণীর ওপর। যার নাম সিভেট। সিভেট হল একটি ছোট আকৃতির প্রাণী। যা সাধারণত এশিয়া এবং আফ্রিকার জঙ্গলের মধ্যে দেখতে পাওয়া যায়। এরা ফলটি খেয়ে হজম করে ফেলে কিন্তু দানাটিকে হজম করতে পারে না। তখন তাদের প্রাতঃক্রিয়ার সঙ্গে এই কফির দানা বেরিয়া আসে। জঙ্গলে ঘুরে তাদের প্রাতঃক্রিয়া সংগ্রহ করে আনেন কফি উৎপাদকরা।

এদের প্রাতঃক্রিয়া প্রায় ৩ হাজার ডলার দিয়ে বিক্রি করা হয় বাজারে। কিন্তু এই প্রাণীর সংখ্যা পৃথিবীতে খুবই কম। যার ফলে এই কফিকে লাল হীরের সঙ্গে তুলনা করা হয়ে থাকে।

ব্ল্যাক আইভোরি কফি
ব্ল্যাক আইভোরি কফি বানানো হয়ে থাকে হাতির প্রাতঃক্রিয়া দিয়ে। কিন্তু হাতিকে খুব সহজে পাওয়া গেলেও দাম যথেষ্ট বেশি হয় এই কফির। কারণ, এই কফির ফল খাওয়ার পরে হাতির প্রাতঃক্রিয়া হওয়ার সময় লাগে প্রায় ১৭ ঘণ্টা। যার জন্যই দাম হয় এই কফির। প্রথমে হাতিকে এই ফল খাওয়াতে হয়। তারপর হাতি ফল হজম করে নেয়। তারপর গিয়ে প্রাতঃক্রিয়া করে হাতি। প্রতি বছর প্রায় ৪৪০ পাউন্ড এই কফি পাওয়া যায়। ১ কেজি কফি পাওয়ার জন্য হাতিকে প্রায় ৩৩ কেজি ফল খাওয়াতে হয়। এই সমস্ত প্রক্রিয়ার জন্যই দাম বেড়ে যায় কফির।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে