ফাইজারের টিকায় নেই পশুর চর্বি

0
592

মার্কিন কোম্পানি ফাইজার-বায়োএনটেকের উদ্ভাবিত করোনা ভাইরাসের টিকা যুক্তরাজ্যে ব্যবহারে অনুমোদন দেওয়া হয় গত ২ ডিসেম্বর, যা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রয়োগ শুরু হয়েছে ৮ ডিসেম্বর। কিন্তু এর মধ্যেই দেশটিতে থাকা বাংলাদেশি কমিউনিটিতে আলোচনা হচ্ছে ফাইজারের টিকাটি হালাল নাকি হারাম তা নিয়ে। মূলত শীতের সময় শ্বাসকষ্ট রোধে যুক্তরাজ্যে ব্যবহৃত ফ্লু জ্যাবে শূকরের চর্বি রয়েছে, এমন ধারণা থেকেই করোনার টিকা নিয়ে এ বিতর্কের সূত্রপাত।

টিকা নিয়ে বিভ্রান্তির কারণে আমাদের সময় থেকে যোগাযোগ করা হয় যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা (এনএইচএস) বিভাগের কমিউনিটি এনগেইজমেন্ট ম্যানেজার খসরুজ্জামানের সঙ্গে। তিনি জানান, ফাইজারের টিকায় কোনো ধরনের পশুর চর্বি বা মাংসের কোষ নেই। এটি টিকাবিরোধী একটি অপপ্রচার। ভবিষ্যতেও আরও যেসব করোনা টিকা আসবে, সেগুলোয় কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে কিনা কিংবা কোনো ধর্মের বা সংস্কৃতির সঙ্গে বিরোধ আছে কিনা, সেগুলো বিস্তারিত প্রকাশ করবে এনএইচএস।

এনএইচএস আরও জানায়, যেহেতু কোভিড-১৯ রোগে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মারা যাওয়ার তালিকায় কৃষ্ণাঙ্গ, আদিবাসী ও বাংলাদেশিদের নাম এসেছে, তাই এ টিকা সেভাবেই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। টিকাটি স্বতন্ত্র মেডিসিন রেগুলেটরি বডি দ্বারা পরীক্ষিত, তাই এটি নিশ্চিত যে সাধারণ অন্যান্য টিকায় যেমন সামান্য জ্বর আসে, তেমন ছাড়া এর কোনো বড় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। ব্রিটিশ ইসলামিক মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনও (বিমা) এ টিকা নেওয়ার ব্যাপারে তাদের মতামত জানিয়েছে।

এদিকে বিমা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, তারা নিশ্চিত যুক্তরাজ্য ফাইজারের টিকার যে অনুমতি দিয়েছে, সেটিতে কোনো ধরনের পশুর চর্বি বা অংশ নেই। এ প্রসঙ্গে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে কোভিড নিয়ে কাজ করা বাংলা হাউজিং অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নির্বাহী বশির উদ্দিন বলেন, ইতোমধ্যে ব্রিটিশ ইসলামিক মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন এ বিষয়ে মতামত দিয়েছে। তারা ব্রিটিশ ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থার সঙ্গে এটি নিয়ে কাজ করে আমাদের জানিয়েছে যে, এতে ধর্মীয় মূল্যবোধের সঙ্গে সাংঘর্ষিক কিছু নেই।

পূর্ব লন্ডনের শাহজালাল জামে মসজিদের প্রধান ইমাম, ইসলামিক শরিয়াহ আইন বিশেষজ্ঞ, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মুফতি আবদুর রহমান মনোহরপুরী বলেন, এক ধরনের ভিডিও ছড়ানো হচ্ছে যে, এই টিকা নিলে আমাদের ইসলামিক মূল্যবোধ বা চেতনা লোপ পাবে। এসব ভুয়া বার্তা ছড়ানোর মধ্য দিয়ে মানুষের মনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কোনো মানে নেই। এসব থেকে সবার সচেতন থাকতে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে