মশা তাড়ানোর প্রাকৃতিক উপায়

0
653

মশা এক যন্ত্রণাদায়ক নাম। বিরক্তিকর উপদ্রবের পাশাপাশি তারা রোগজীবাণু সংক্রমণ করে। এই মশা অনেক সময় মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

মশার মাধ্যমে ম্যালেরিয়া, চিকুনগুনিয়া, ডেঙ্গু, ফাইলেরিয়া, পীত জ্বর, জিকা ভাইরাস প্রভৃতি মারাত্মক রোগ সংক্রমিত হয়ে থাকে। স্প্রে, কয়েল, অ্যারোসল কোনও কিছুতেই মশা তাড়ানো সহজ নয়।

তবে এই সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে ভরসা রাখুন কিছু ঘরোয়া টোটকার ওপর। জেনে নেয়া যাক এমন কিছু ঘরোয়া উপায়, যার সাহায্যে আপনি কম সময়ে মশা তাড়াতে সক্ষম হবেন।

মশা তাড়ানোর সহজ ৫টি উপায় জেনে নিন-

১. একটি পাত্রে নারকেল তেল, নিমের তেল, লবঙ্গের তেল, পিপারমেন্ট তেল সমান মাত্রায় মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ একটা বোতলে ঢেলে নিন। রাতে শোয়ার আগে আপনি এই তেল গায়ে মেখে নিন, একটা মশাও আপনার কাছে ঘেঁষবে না।

২. এই টোটকার জন্য নিমের তেল, কর্পূর এবং তেজপাতা দরকার। সবার আগে নিমের তেলের সাথে কর্পূর মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে ঢেলে নিন। এবার তেজপাতার ওপর সেই মিশ্রিত তেল স্প্রে করুন। তারপর তেজপাতাটা পুড়িয়ে দিন। যদি বাড়িতে কোনো স্প্রে বোতল না থাকে তাহলে হাত দিয়ে তেজপাতার ওপর তেল ভালো করে লাগিয়ে নিন। তেজপাতার ধোঁয়ায় মশা মুহূর্তে ঘর ছেড়ে পালাবে।

৩. শোয়ার সময় যেদিকে মাথা রাখবেন তার থেকে একটু দূরে নিমের তেল দিয়ে প্রদীপ জ্বালান। যদি মশার উপদ্রব খুব বেশি হয় তাহলে সেই তেলে একটু কর্পূর মিশিয়ে নিন। এতে করে মশা আপনার ধারে কাছেও আসবে না।

৪. চামচিকারারা এক ঘণ্টায় কয়েকশত পোকা-মাকড় খেয়ে ফেলে। তাই মশা তাড়াতে ব্যাট হাউস বানাতে পারেন। বারান্দায় কিংবা ভেন্টিলেটরের কাছে রাখুন আর চামচিকাদের কাজ করতে দিন।

৫. ব্যবহৃত চা-পাতা ফেলে না দিয়ে ভালো করে রোদে শুকিয়ে নিন। এইভাবে ওই চা পাতা ধুনোর বদলে ব্যবহার করুন। শুকনো চা পাতা পোড়ানো ধোঁয়ায় ঘরের সমস্ত মশা, মাছি পালিয়ে যাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে