মেডিকেল শিক্ষা গবেষণার দ্বার খুলছে খুলনায়

0
822

মেডিকেল শিক্ষায় গবেষণা ও উচ্চশিক্ষার মানোন্নয়নে খুলনায় শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ আরও এক ধাপ এগিয়েছে। গতকাল সংসদে ‘শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিল-২০২১’ কণ্ঠভোটে পাস হয়। বিলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ, রেজিস্ট্রার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কর্মচারীদের নিয়োগ প্রক্রিয়া, ক্ষমতা ও দায়িত্ব বর্ণনা করা হয়েছে। এদিকে শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় প্রত্যাশিত অগ্রগতিতে উচ্ছ্বাস দেখা দিয়েছে এ অঞ্চলের মানুষের মাঝে। জানা যায়, ২০১৯ সালে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন প্রধানমন্ত্রীর স্মৃতি লালিত খুলনায় ‘শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়’ স্থাপনের প্রস্তাব দেন। পরে জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভায় এ বিষয়টি আলোচনা হয় এবং খুলনায় মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি দেওয়া হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা আইন ২০২০’ এর নীতিগত অনুমোদন হয়। পরে যাচাই-বাছাই শেষে সংসদে তা বিল আকারে পাস হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, দ্রততম সময়ের মধ্যে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়টি আইনে পরিণত ও বাস্তবে কার্যকর রূপ পেতে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে খুলনায় উন্নত চিকিৎসা আরও সম্প্রসারিত হবে। তিনি স্বল্প সময়ের মধ্যে খুলনায় শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় উদ্যোগ নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফ-উজ্জামান বলেন, দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হওয়ায় খুশি এ অঞ্চলের মানুষ। বিশ্ববিদ্যালয়টি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্‌বান জানান তিনি।

জানা যায়, মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য লবণচরা থানা এলাকায় ৬০ একর জমি এবং একই এলাকায় আরও ৫০ একরের একটি জমি প্রাথমিকভাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে