লেজার চিকিৎসা নিয়ে যত ভুল ধারণা

0
100

‘লেজার’ শব্দটির অর্থ বেশ জটিল, এটি একটি ইংরেজি শব্দ। মূলত লেজার শব্দটি ‘লাইট অ্যাম্প্লিফিকেশন বাই দ্য স্টিমুলেটেড এমিশন অব রেডিয়েশন’-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। অতি সহজভাবে বলতে গেলে আলোকরশ্মিকে বিভিন্ন মাধ্যমের মধ্য দিয়ে খুব সূক্ষ্মভাবে ও শক্তিশালী করে প্রবাহিত করে চিকিৎসার কাজে ব্যবহার করাই লেজার চিকিৎসা। লেজার নিয়ে ত্বক বিশেষজ্ঞরা যে শুধু কাজ করেন তা নয়, শরীরের অভ্যন্তরেও বিভিন্ন সমস্যায় লেজারের ব্যবহার হয়ে থাকে।

অযথা ভয়

লেজার শব্দটি সুপরিচিত হলেও এর মাধ্যমে চিকিৎসা নেওয়ার বিষয়ে রয়েছে ব্যাপক ভুল বোঝাবুঝি। অনেকেই ভাবেন লেজার চিকিৎসা অত্যন্ত ভয়ংকর, এই চিকিৎসায় অনেক ঝুঁকিও, বিশেষ করে লেজার চিকিৎসায় ক্যান্সারের ঝুঁকি রয়েছে বলে অনেকেই বিশ্বাস করেন। আবার অনেকে সরাসরি জিজ্ঞাসাই করেন, লেজার চিকিৎসা করলে পরবর্তী সময়ে ক্যান্সার হতে পারে কি না। কেন যে ক্যান্সারের সঙ্গে লেজার চিকিৎসার সম্পর্ক আছে বলে তাঁরা ভাবেন, সেটার কারণ আজও অজানা।

তবে ১০০ শতাংশ নিশ্চিত করে বলা যায়, লেজার চিকিৎসায় কখনোই ক্যান্সারের আশঙ্কা থাকে না, বরং ক্যান্সার সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করতে অনেক ক্যান্সারের চিকিৎসায়ই লেজার ব্যবহূত হয়, বিশেষ করে যেসব ক্ষেত্রে হাতের ছুরি দিয়ে কেটে নির্মূল করা অত্যন্ত দুরূহ বা অনেক ক্ষেত্রে অসম্ভব।

লেজার চিকিৎসাই একমাত্র সমাধান

যেসব সমস্যার চিকিৎসা নেই বলে ভাবা হতো তা এখন অতি সহজেই লেজারের মাধ্যমে সমাধান করা যায়। এগুলোর মধ্যে আঁচিল জরুল, মুখের বা শরীরের যেকোনো স্থানের অবাঞ্ছিত লোম চিরস্থায়ীভাবে নির্মূল করা অন্যতম প্রধান। এ ছাড়াও লেজারের মাধ্যমে ত্বকে জন্মদাগ, কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত কালো দাগ, যেমন ট্যাটু করার পর সেটাকে নির্মূল করতে চাইলে সেটা অপসারণ, ত্বকের বার্ধক্যজনিত পরিবর্তন দূর করে তারুণ্য ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

ত্বক চিকিৎসায় মুখের ত্বকে ব্রণ বা বসন্তের কারণে সৃষ্ট দাগ নির্মূল করা নিয়ে সব সময় বিশেষজ্ঞদের  সমস্যা মোকাবেলা করতে হয়। লেজার চিকিৎসা প্রবর্তনের আগে এ রকম রোগীদের চিকিৎসকদের দুঃখ প্রকাশ করা ছাড়া কোনো ইতিবাচক বার্তা দেওয়ার অবকাশ ছিল না, কিন্তু এখন লেজার চিকিৎসা এ সমস্যাটির অনেকখানিই সমাধান করতে পেরেছে।

সম্পূর্ণ নিরাপদ

লেজার চিকিৎসা এতটাই নিরাপদ যে সদ্যোজাত শিশুর ওপরও এটা প্রয়োগ করা সম্ভব। তবে লেজার চিকিৎসার বিপদ নিয়ে যেমন রয়েছে মানুষের ভুল ধারণা, তেমনি উল্টোভাবে লেজারের কার্যকারিতা নিয়েও জনগণের রয়েছে অতিরিক্ত উচ্চাশা, যা অনেক ক্ষেত্রেই বাস্তবসম্মত নয়। অনেকেই এ রকম আশা বা ধারণা পোষণ করেন যে লেজার চিকিৎসা পদ্ধতির মধ্য দিয়ে গেলে তাঁরা অপরূপ রূপের অধিকারী হবেন। এটা যে সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারণা তা বলার অপেক্ষা রাখে না।
পরামর্শ দিয়েছেন

ডা. যাকিয়া মাহফুজা যাকারিয়া

সিনিয়র কনসালট্যান্ট, ডার্মাটোলজি

উত্তরা স্কিন কেয়ার অ্যান্ড লেজার, ঢাকা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে