স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে কমিউনিটি ক্লিনিকে মনিটরিং শুরু

0
479

গোপালগঞ্জে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবার মান বৃদ্ধি ও কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরতদের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন শতভাগ নিশ্চিতে কমিউনিটি ক্লিনিকে মনিটরিং ও সুপারভিশনের কাজ শুরু হয়েছে।

আজ সোমবার গোপালগঞ্জ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চক্ষু হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাহিদ ফেরদৌসী দেশের প্রথম কমিউনিটি ক্লিনিক টুঙ্গিপাড়ার গিমাডাঙ্গা কমিউনিটি ক্লিনিকে এ কার্যক্রম শুরু করেন।

ডা. নাহিদ ফেরদৌসী দেশের কমিউনিটি ক্লিনিক মনিটরিং ও সুপার ভিশনের অতিরিক্ত দায়িত্ব পেয়েছেন। তিনি বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকের সেবায় শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার কমেছে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী রোগ প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়েছে। তাদের সেবার মান আরও বৃদ্ধি করে এখানে কর্মরতদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে মনিটরিং ও সুপার ভিশন শুরু করেছি। আমি সারাদেশের দায়িত্ব পেলেও মূলত দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার দায়িত্ব পালন করব। মনিটরিং ও সুপারভিশনের মাধ্যমে কমিউনিটি ক্লিনিককে আরও গতিশীল করে আমরা প্রান্তিক জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্যসেবা শতভাগ নিশ্চিত করব। এ বিষয়ে গবেষণার কাজ হবে। গবেষণার তথ্য উপাত্ত সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হবে। এতে এ অঞ্চলের সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জসীম উদ্দিন বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকে মনিটরিং ও সুপারভিশনের জন্য ডা. নাহিদ ফেরদৌসীকে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি রবিবার ৩টি কমিউনিটি ক্লিনিক মনিটরিং ও সুপারভিশন করেছেন। তিনি কাজের ক্ষেত্রে খুবই আন্তরিক। তিনি প্রত্যেকটি কমিউনিটি ক্লিনিকের পরিবেশ রক্ষায় একটি করে ফলদ গাছের চারা রোপণ করেছেন। মনিটরিং ও সুপারভিশন এভাবে অব্যাহত রাখলে গ্রামের সব মানুষ এখান থেকেই ভাল চিকিৎসা সেবা এবং বিনামূল্যে ঔষুধ পেয়ে আরও বেশি উপকৃত হবেন।

পাটগাতী গ্রামের আবুল সরদার বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে চিকিৎসা ও বিনামূল্যে ঔষুধ পেয়ে আমরা রোগ-ব্যাধি থেকে দূরে আছি। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। আমি কমিউনিটি ক্লিনিকে এসে জানতে পারলাম এখন থেকে একজন ডাক্তার নিয়মিত কমিউনিটি ক্লিনিক মনিটরিং ও সুপারভিশন করবেন। এতে আমাদের সেবার মান আরও বাড়বে। এখানে বসেই প্রচলিত সেবার পাশাপাশি নতুন চিকিৎসা সেবা পাব বলে আশা করছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে