হৃদরোগীরা কি করোনার টিকা নিতে পারবেন?

0
670

অনেকেই জানতে চান হৃদরোগসহ উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা, অ্যালার্জি ইত্যাদি রোগে আক্রান্ত রোগীরা করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে পারবেন কিনা? আবার যারা হার্টে স্টেন্ট বা রিং পরিয়েছেন, ওপেনহার্ট সার্জারি করিয়েছেন তারাও টিকা নিতে পারবেন কিনা? এসব রোগে আক্রান্ত রোগীর করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার আগে কোনো ওষুধ বন্ধ করতে হবে কিনা? প্রশ্নগুলোর উত্তর একটাই; হ্যাঁ, টিকা নিতে পারবেন, নিতে হবে, অবশ্যই নেবেন।

বয়স ১৮ বছরের বেশি যে কেউ টিকা নিতে পারবেন। শুধু যারা কোনো হঠাৎ চলমান (Acute illness) রোগে যেমন- জ্বর, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, নতুন হার্ট অ্যাটাক, একিউট কিডনি ফেইলুর, একিউট লিভার ফেইলুর, নতুন ব্রেইন স্ট্রোক, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ ও ক্যান্সার আক্রান্ত ইত্যাদিতে আক্রান্ত রোগী যদি কেমোথেরাপি অথবা রেডিওথেরাপি নিয়ে থাকেন, তবে করোনার টিকা নেওয়া যাবে না। তবে Acute illness  এর ধাক্কা কেটে গেলে টিকা নিতে পারবেন। এমনকি গর্ভবতী মায়েরাও করোনার টিকা নিতে পারবেন।

উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, কিডনি রোগ এসব যদি নিয়ন্ত্রণে থাকে তবে চিকিৎসকের পরামর্শে টিকা নেওয়া যাবে। যদি টিকার প্রথম ডোজ নেওয়ার সময় খারাপ ধরনের অ্যালার্জি (hypersensitive reaction or anaphylaxis) হয় তাহলে তিনি টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেবেন না। এ ছাড়া যাদের হাঁপানি বা ফুসফুসজনিত অসুখ রয়েছে তাদেরও নেওয়া ঠিক হবে না। আর যারা হার্টে রিং (stent) পরিয়েছেন বা বাইপাস সার্জারি করিয়েছেন, তাদের সব প্যারামিটার ঠিক থাকে, তবে অসুবিধা নেই। কোনো ওষুধ বন্ধ না করেই টিকা নেবেন। তবে সবক্ষেত্রেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

টিকা কোনো ভয় বা আতঙ্কের বিষয় নয়। এটা বিজ্ঞানের আশীর্বাদ। এখন পর্যন্ত টিকা নিয়ে গুরুতর অসুস্থ হওয়ার কোনো সংবাদ নেই। যেসব মৃদু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়, সেগুলোর কথাই বলেছেন টিকাগ্রহীতারা। কিছু সময় পর যা সেরেও গেছে।

আপনি একা টিকা নিলে লাভ হবে না। পরিবারের সবাইকে নিয়ে টিকা নিন। জনসংখ্যার ৭০/৮০ ভাগ মানুষ টিকা না নিলে করোনা আমাদের মাঝে ঘুরতেই থাকবে। অতএব সবার স্বার্থে টিকা নিন, অন্যকে উৎসাহিত করুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে