হৃদরোগ, ফুসফুসের জটিলতায় ই-সিগারেটও দায়ী

0
728

একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব অংশগ্রহনকারীরা শুধুমাত্র ই-সিগারেট ব্যবহার করেন তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি অধুমপায়ীদের থেকে বেশি

ধুমপানের অভ্যাস ছাড়তে ই-সিগারেটের ব্যবহার হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় উঠে এসেছে এমন তথ্য।

দেশটির প্রায় ৭,০০০ মানুষের  স্বাস্থ্য এবং তাদের ধুমপানের অভ্যাসের উপর চালানো পরীক্ষায় দেখা যায়, শুধুমাত্র ই-সিগারেট ব্যবহার করেছেন এমন ধুমপায়ীদের মধ্যেও হৃদরোগের মৃদু ঝুঁকি পরিলক্ষিত হয়েছে। বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনস্বাস্থ্যবিষয়ক বিশেষজ্ঞ অ্যান্ড্রু স্ট্রোকসের নেতৃত্বে এই পরীক্ষাটি চালানো হয়।

গবেষণালব্ধ তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, যেসব অংশগ্রহনকারীরা শুধুমাত্র ই-সিগারেট ব্যবহার করেন তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি অধুমপায়ীদের থেকে বেশি।

ড. স্টোকস বলেন, ‘ই-সিগারেটের দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব বোঝার জন্য এর ফলে সৃষ্ট হৃদরোগের লক্ষণ পর্যালোচনা করা জরুরি।’

তিনি আরও বলেন, “অনেকসময় ধুমপায়ীরা ধুমপান বন্ধে ই-সিগারেট ব্যবহারের দিকে ঝুকে পড়েন। এ থেকে অনেকসময় তারা সিগারেট এবং ই-সিগারেট উভয়ের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েন।”

এই গবেষণা থেকে প্রাপ্ত ফলাফল পরবর্তীতে সিগারেট এবং ই-সিগারেট উভয় ব্যবহারকারীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি সম্পর্কে সচেতন করতে সহায়ক হবে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, “ধুমপান ছাড়তে হলে সবধরনের তামাকজাতদ্রব্য ব্যবহার থেকে বিরত থাকা জরুরি।”

আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের চীফ মেডিকেল অফিসার রোজ ম্যারি রবার্টসন বলেন, “অনেকে মনে করেন, সিগারেট ব্যবহারের পাশাপাশি ই-সিগারেটের ব্যবহার হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। এই গবেষণা তাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেবে।”

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানায়, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে যুক্তরাজ্যে সিগারেটের বিক্রয় কমেছে। পূর্বের তুলনায় ধুমপায়ীর সংখ্যা কমেছে ০.৬%।

তবে, একইসময়ে ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে ই-সিগারেটের ব্যবহার। ধারণা করা হচ্ছে, বর্তমানে প্রায় ৩০ লক্ষ ব্রিটিশ নাগরিক নিয়মিত ই-সিগারেট ব্যবহার করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে