১২শ শয্যার হচ্ছে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতাল

0
846

বৃহস্পতিবার জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের কার্ডিয়াড ক্যাথল্যাব-২ উদ্বোধন করতে এসে একথা জানান তিনি।

হৃদরোগের চিকিৎসায় বিশেষায়িত ঢাকার এই সরকারি হাসপাতালে বর্তমানে শয্যা সংখ্যা ৭০০ তা থেকে ৫০০ বাড়ানো হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “দেশের ৮টি বিভাগে ৮টি উন্নত মানের ক্যান্সার হাসপাতাল নির্মাণে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজকে ৫ হাজার বেডে উন্নীত করা হচ্ছে। একইভাবে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটকে ৭০০ শয্যা থেকে ১২০০ শয্যায় উন্নীত করা হচ্ছে।”

স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় নিয়োজিত চিকিৎসক-নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের ধন্যবাদ জানান।তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কোনো দেশের টিকার স্বীকৃতি এখন পর্যন্ত দেয়নি। বাংলাদেশ টিকা পেতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। “যখনই কোনো দেশ স্বীকৃতি পাবে আমরা সবার আগে সেটি দেশে নিয়ে আসব। ভ্যাকসিন আনতে সরকার অন্যান্য দেশের সাথেও আলোচনা অব্যাহত রেখে চলেছে। ভ্যাকসিন অনুমোদিত হলে আমাদের দেশে আনতে কোনো দেরি হবে না।”

জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীর জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম, স্বাচিপের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ বক্তব্য রাখেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে