২ মাসে ১ কোটির বেশি মানুষকে টিকা দিয়েছে যুক্তরাজ্য

0
724

বিভিন্ন দেশে চলছে করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম। সবার আগে শুরু করে দুই মাসে এক কোটি ১৪ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দিয়েছে যুক্তরাজ্য। তবে, প্রত্যাশার তুলনায় ধীরে চলছে যুক্তরাষ্ট্রের টিকাদান কর্মসূচি। এশিয়ার মধ্যে টিকাদানে এগিয়ে ভারত।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদন বলছে, করোনার ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু করেছে অন্তত ৭৩ দেশ। টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন ১২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষ। ডিসেম্বরের শুরুতে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু করে যুক্তরাজ্য। ফাইজার, মডার্নার পাশাপাশি অক্সফোর্ডের টিকা দিচ্ছে দেশটি। দুই মাসে এক কোটি ১৪ লাখের বেশি মানুষকে টিকা দেয়া হয়েছে। উত্তর আমেরিকা, ইউরোপ আর মধ্যপ্রাচ্যেও দেয়া হচ্ছে ফাইজারের টিকা।

ব্লুমবার্গের পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বের ৭৫ শতাংশ মানুষকে দুই ডোজ করে টিকা দিতে লাগতে পারে সাত বছর।
করোনায় বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত আর প্রাণহানির দেশ যুক্তরাষ্ট্রে টিকা দেয়া শুরু হয় ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে। তবে প্রত্যাশার চেয়ে ধীরে চলছে দেশটির টিকা কার্যক্রম। ফাইজার বায়োএনটেক আর মডার্না; এই দুই প্রতিষ্ঠানের এক ডোজ টিকা নিয়েছেন তিন কোটি মার্কিনি। আর দুই ডোজ-ই নিয়েছেন ৮০ লাখ মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রে করোনার মোট টিকা নিয়েছেন ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৬৫ হাজার। প্রতিদিন গড়ে টিকা নিচ্ছেন ১৩ লাখ মার্কিনি। প্রতি ১০০ জনে ১১ জন টিকার আওতায়।

এশিয়ার মধ্যে টিকাদান কর্মসূচিতে সবচেয়ে এগিয়ে ভারত। নিজস্ব টিকা কোভ্যাক্সিনের পাশাপাশি দেয়া হচ্ছে অক্সফোর্ডের টিকা। এরইমধ্যে টিকা নিয়েছেন ৫০ লাখের বেশি। বাংলাদেশ, নেপালসহ বেশ কয়েক দেশেও টিকা দিচ্ছে দেশটি।

নিজেদের তৈরি ভ্যাকসিন দিচ্ছে রাশিয়া আর চীন। আট লাখ মানুষকে ভ্যাকসিন দিয়েছে রাশিয়া। চীন টিকা দিয়েছে ৩ কোটি ১২ লাখ মানুষকে। টিকা নেয়ার হারের দিক থেকে বিশ্বে শীর্ষে ইসরায়েল। প্রতি একশ জনের ৫৯ জনকে টিকার আওতায় এনেছে দেশটি।

ব্লুমবার্গের পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বে প্রতিদিন সাড়ে ৪৫ লাখের বেশি ডোজ করোনার টিকা দেয়া হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে